Bank Jobs


Bank Job Course
Test Code: TBK200017
TK.
2000
  • - কোর্সটি এমসিকিউ পরীক্ষার আগে পর্যন্ত
  • - প্রতি সপ্তাহে মডেল টেস্ট
  • - প্রশ্ন আপডেট প্রতিদিন
  • - প্রতিটি বিষয়ের উপর আলোচনা
  • - বিগত সালের প্রশ্ন ও সমাধান
Bank Job Model Test
Test Code: TBK17517
TK.
175
  • Total Questions   100
  • Total Marks   100
  • Time   1 Hour

পেশাগত জীবনে ব্যাংক ক্যারিয়ার বাংলাদেশে আকর্ষণীয় ও সুবিধজনক জব। বর্তমানে সরকারি ব্যাংক এ নিয়োগ পেতে হলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে Bank Recruitement Exam. এ অংশ নিয়ে নিজের সক্ষমতা অর্জন করতে হয়। পরীক্ষাটি গ্রহণ করে ‘ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয়’। 100 নম্বরের MCQ ও 200 নম্বরের লিখিত পরীক্ষা শেষে ভাইভা-র মাধ্যমে চূড়ান্ত প্রার্থী নির্বাচন করা হয়।

Bank Recruitement Exam. এ অংশগ্রহণকারীদের প্রস্তুতি যাচাই করতে Bank Preparation Model Test-একটি চমৎকার মাধ্যম। সময় ও খরচ বাঁচিয়ে ঘরে বসেই প্রস্তুতি পরীক্ষা দিতে BD Online Academy-র বিশেষ আয়োজন। আমাদের বিশাল প্রশ্নভান্ডার থেকে আপনার পছন্দের Exam. প্যাকেজ গ্রহণ করতে পারেন। যত Practice তত আত্মবিশ্বাস।

আমাদের রয়েছে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ/আন্তর্জাতিক) এবং বিগত ব্যাংক রিক্রুটমেন্ট পরীক্ষার প্রশ্ন ও সমাধান। আমাদের আয়োজন শুধু আপনার পরীক্ষা প্রস্তুতির জন্যেই। নিজের সক্ষমতাকে বাড়াতে আমাদের Bank Preparation Model Test-এ স্বাগতম।

সমন্বিত পরীক্ষায় ৩৪৬৩ নিয়োগ

সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে সমন্বিতভাবে কর্মকর্তা (সাধারণ) নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি। আবেদনের শেষ তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে ১৭২২, রূপালী ব্যাংকে ৬৯৯, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকে ৪৫৫, সোনালী ব্যাংকে ৩৬৩, জনতা ব্যাংকে ১৯০, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকে ১৮ ও ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশে (আইসিবি) ১৬ জন নিয়োগ দেওয়া হবে। বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ওয়েবসাইটে (www.bb.org.bd)। নিয়োগ প্রক্রিয়া দেখভাল করছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি।

আবেদনের যোগ্যতা

বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক ও ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব মো. মোশাররফ হোসেন খান জানান, যেকোনো বিষয়ে স্নাতকোত্তর বা চার বছরমেয়াদি স্নাতক বা স্নাতক (সম্মান) হলে আবেদন করা যাবে। মাধ্যমিক ও তদূর্ধ্ব পর্যায়ে যেকোনো একটিতে প্রথম বিভাগ বা শ্রেণি থাকতে হবে। কোনো পর্যায়েই তৃতীয় বিভাগ বা শ্রেণি থাকা চলবে না। এসএসসি ও এইচএসসি পর্যায়ে গ্রেডিং পদ্ধতিতে প্রকাশিত ফলের ক্ষেত্রে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ, জিপিএ ২.০০ থেকে ৩.০০-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ ধরা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্ট স্কেলে সিজিপিএ ৩.০০ বা বেশি হলে প্রথম বিভাগ বা শ্রেণি, ২.২৫ বা তার বেশি কিন্তু ৩.০০-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ ধরা হবে। আর পয়েন্ট স্কেল ৫ হলে ৩.৭৫ বা এর ওপরে প্রথম বিভাগ বা শ্রেণি, ২.৮১৩ থেকে বেশি কিন্তু ৩.৭৫-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ বা শ্রেণি ধরা হবে। ১ আগস্ট ২০১৭ তারিখে বয়স হতে হবে অনূর্ধ্ব ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা/ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদন প্রক্রিয়া

বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের (erecruitment.bb.org.bd) মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। কোনো আবেদন ফি লাগবে না। প্রার্থীর নাম, পিতা ও মাতার নাম এসএসসি বা সমমানের সনদে যেভাবে লেখা আছে, অনলাইন ফরমে সেভাবে পূরণ করতে হবে। ফলাফলের ঘরে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের প্রকাশিত পরীক্ষার ফলাফলের তারিখ উল্লেখ করতে হবে। আপলোড করতে হবে ৬০০ বাই ৬০০ পিক্সেল ও সর্বোচ্চ ৮০ কিলোবাইটের ছবি এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল ও সর্বোচ্চ ৬০ কিলোবাইটের স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি। অনলাইনে আবেদন করার পর ট্র্যাকিং নম্বরযুক্ত ফরমটি সংরক্ষণ করতে হবে। প্রার্থীদের প্রাথমিকভাবে কোনো কাগজপত্র জমা দিতে হবে না। লিখিত পরীক্ষার পর মৌখিক পরীক্ষার সময় সব একাডেমিক পরীক্ষার সনদ, জাতীয়তার সনদ, নাগরিকত্ব সনদ, চারিত্রিক সনদের সত্যায়িত ফটোকপি দাখিল করতে হবে। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। আবেদন করা যাবে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

পরীক্ষার ধরন

এমসিকিউ, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। এক ঘণ্টার এমসিকিউ পরীক্ষায় ১০০ ও দুই ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষায় বরাদ্দ থাকবে ২০০ নম্বর। এরপর হবে মৌখিক পরীক্ষা। এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষা সাধারণত বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত ও সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি), তথ্য-প্রযুক্তি, অ্যানালিটিক্যাল অ্যাবিলিটি বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। লিখিত পরীক্ষায় ২০০ নম্বরের মধ্যে বাংলা, ইংরেজি ও গণিতে ৫০ নম্বর করে থাকে। বাকি ৫০ নম্বর বরাদ্দ থাকে বাংলা থেকে ইংরেজি ও ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদে।

লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের সাধারণত ২৫ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায় ডাকা হয়। সব রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সাধারণত একই ধরনের হয়ে থাকে। বিগত বছরগুলোর নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন অনুসরণ করলে এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষায় ভালো করা যাবে।

বাংলা

এমসিকিউ পরীক্ষার বাংলা অংশে ব্যাকরণ এবং সাহিত্য থেকে প্রশ্ন করা হয়। সাহিত্য অংশে বিভিন্ন কবি-সাহিত্যিকের জীবনী, সাহিত্যকর্ম, বিভিন্ন গ্রন্থের নাম, উপন্যাস বা গল্পের বিভিন্ন চরিত্রের নাম, বিখ্যাত পঙিক্তমালাসহ সাহিত্যের অন্যান্য অংশ থেকে প্রশ্ন আসে। মাধ্যমিক পর্যায়ের বাংলা পাঠ্য বই থেকে কবি-সাহিত্যিকদের জীবনী অংশ ভালোভাবে পড়তে হবে। ব্যাকরণ অংশে শুদ্ধ-অশুদ্ধ, কারক, বিভক্তি, উপসর্গ, বাগধারা, পদ, এককথায় প্রকাশ, বচন, সমাস, সন্ধিবিচ্ছেদ, প্রবাদ-প্রবচন, সমার্থক, পারিভাষিক শব্দ, সমোচ্চারিত শব্দ, বিপরীত শব্দ থেকে প্রশ্ন আসতে পারে।

সাম্প্রতিক সময়ের গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে রচনা এবং বাংলা থেকে ইংরেজি অনুবাদ থাকে লিখিত পরীক্ষায়। বোর্ড প্রকাশিত নবম-দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ, ভাষা ও সাহিত্য এবং একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির বাংলা সাহিত্যের বই প্রস্তুতিতে সহায়ক হবে।

ইংরেজি

গ্রামার অংশে এমসিকিউ পরীক্ষায় Fill in the blanks, Correctly spelt word, Appropriate word, Appropriate preposition, Synonyms, Antonyms, Transformation of sentence, Phrases and idioms, Right forms of verb থেকে বেশি প্রশ্ন আসে। একটি বিভাগ থেকে কয়েকটি করে প্রশ্ন থাকতে পারে। রচনামূলক অংশে সাধারণত জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ইংরেজি রচনা আসতে পারে। বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ ও লেটার রাইটিংও থাকে। ইংরেজিতে বেসিক ভালো হলে সহজেই বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর করা যায়। বাজারে বিভিন্ন প্রকাশনীর গ্রামার বই পাওয়া যায়। সেসব বই ছাড়াও নবম-দশম শ্রেণির পাঠ্য ইংলিশ গ্রামার বইটি বেশ কাজের।

গণিত

এমসিকিউ ও লিখিত উভয় পরীক্ষায় পাটীগণিত ও বীজগণিত থেকে প্রশ্ন আসে। পাটীগণিতে শতকরা, সুদকষা, লসাগু, গসাগু, অনুপাত-সমানুপাতসহ নানা বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। বীজগণিতে থাকে উত্পাদক নির্ণয়, মূলদ, অমূলদ, সমীকরণ, সূচক ও লগারিদমের সূত্রের প্রয়োগ বিষয়ে।

শতকরা, লাভ-ক্ষতি, সুদকষা, ঐকিক নিয়ম, গাণিতিক যুক্তি থেকে এমসিকিউ ও রচনামূলকে বেশি প্রশ্ন থাকে। জ্যামিতি, পরিমিতি থেকেও প্রশ্ন আসে। ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে নবম-দশম শ্রেণির পাটীগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতি বই পড়তে হবে। জিআরই ম্যাথ সহায়ক হবে।

সাধারণ জ্ঞান

প্রশ্ন আসে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি থেকে। ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, ঐতিহ্য, কৃষ্টি, সভ্যতার ইতিহাস, ভৌগোলিক অবস্থা, অর্থনীতি, শিল্প ও বাণিজ্য, কৃষি, জিডিপি, অর্থনৈতিক সমীক্ষা, সরকার, রাজনীতি ও বিচারব্যবস্থাসহ সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনাবলি থেকে প্রশ্ন করা হয় বাংলাদেশ অংশে।

বিভিন্ন দেশ, মুদ্রা, বিশ্বরাজনীতি, বিভিন্ন সংস্থা ও জোট, পুরস্কার, সম্মাননা, খেলাধুলা, দিবস, সম্মেলন, আন্তর্জাতিক আইন, বিচারব্যবস্থাসহ সাম্প্রতিক সময়ের বিশ্বের নানা ঘটনাপঞ্জি থেকে প্রশ্ন আসে আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে।

বাজারে নানা প্রকাশনীর সাধারণ জ্ঞানের বই পাওয়া যায়। প্রস্তুতির জন্য দু-তিনটি বই হাতের কাছে রাখতে হবে। নিয়মিত চোখ রাখতে হবে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, সাধারণ জ্ঞানবিষয়ক মাসিক সাময়িকী ও নিউজভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে।

মৌখিক পরীক্ষা

প্রার্থী স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে যে বিষয়ে পড়াশোনা করেছে, ভাইভায় সে বিষয় সম্পর্কেই বেশি প্রশ্ন করা হয়। প্রশ্ন করা হতে পারে নিজ জেলা সম্পর্কেও। পাশাপাশি ব্যাংকিং, অর্থনীতি ও সাম্প্রতিক সময়ের বিষয়ে প্রশ্ন করা হতে পারে। জানতে হবে সাধারণ জ্ঞান ও সাম্প্রতিক বিষয়ের খুঁটিনাটি। মৌখিক পরীক্ষায় আত্মবিশ্বাসের উত্তর দিতে হবে।